গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা,

বাবাই সূত্রধর,গঙ্গারামপুর,দক্ষিণ দিনাজপুর,


  সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিবাদের জেরে গলায় ফাঁসি নিয়ে  আত্বঘাতি হলো এক বৃদ্ধ।ঘটনাটি ঘটেছে  শনিবার সকালে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর থানার নীল ডাঙ্গা এলাকায়। এদিন সকালে ওই বৃদ্ধ কে গলায় ফাঁসি নিয়ে ঝুলে থাকতে দেখে গ্রামবাসীরা থানায় খবর দেয়, ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়ে পুরো তদন্তের ঘটনা শুরু করেছে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ।
          পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত ওই বৃদ্ধ এর নাম অশোক দাস (৭০) বাড়ি গঙ্গারামপুর থানার পশ্চিম জয়পুর এলাকায়।



সূত্রে আরো জানা গিয়েছে, বেশ কয়েক মাস ধরেই দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রীর সঙ্গে সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ লেগে থাকত। বেশ কয়েকদিন ধরে তার দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী তার সঙ্গে থাকত না। মানসিক অবসাদ এর ফলে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে বাড়ি থেকে কিছু দূরত্বে স্থানীয় একটি শ্মশানের পাশে গাছে সঙ্গে গলায় ফাঁসি লাগিয়ে আত্মঘাতী হয় ওই বৃদ্ধ। শনিবার সকালে এলাকার মানুষজন ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পেয়ে ঘটনাস্থলে ভিড় জমায় এবং গঙ্গারামপুর থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। মানসিক অবসাদে এমন কাজ করেছে বলে অনুমান গ্রামবাসীদের।

এ বিষয়ে বৃদ্ধের ছেলে অসীম দাস জানিয়েছেন, মাঝে মাঝে মায়ের সঙ্গে বাবার জমি নিয়ে বিবাদ লেগে থাকত, মা-বাবার সঙ্গে বর্তমানে থাকেনা। গতকাল মানসিক অবসাদে বাবা বাড়ি থেকে বেরিয়ে এসে গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁসি নিয়ে বাবা আত্মঘাতী হয়েছেন।
এ বিষয়ে এক গ্রামবাসী রানা প্রামাণিক জানিয়েছেন, গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁসি নিয়ে মারা গেছে শুনতে পেরে আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি, শুনেছি জমিজমা নিয়ে গন্ডগোল ছিল।

বৃদ্ধকালে  গলায় ফাঁসি নিয়ে আত্মঘাতী হওয়ার ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকাজুড়ে।
AB Banga News-এ খবর বা বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুনঃ 9831738670 / 7003693038, অথবা E-mail করুনঃ banganews41@gmail.com