স্কুল ও মাদ্রাসা করণিকদের ডেপুটেশন,উলুবেড়িয়া

.        


        

রাজ্যের স্কুল ও মাদ্রাসা করণিকদের ট্রান্সফারের সুযোগ সহ অন্যান্য দাবি আদায়, ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থ রক্ষার্থে এবং  অন্যায্য-অতিরিক্ত কাজের বোঝা চাপিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে ১৬ অক্টোবর ২০২০ শুক্রবার দুপুরে উলুবেড়িয়া অতিরিক্ত জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শকের কাছে স্মারকলিপি জমা দিলেন ওয়েস্ট বেঙ্গল স্কুল এন্ড মাদ্রাসা ক্লার্কস্ অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিরা। 



এদিন প্রায় ৩০০ স্কুল ও মাদ্রাসার করণিকরা এই কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেন, মিছিল করে অতিরিক্ত জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক অফিসে যান এবং অতিরিক্ত জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক বনমালী জানা এর কাছে স্মারকলিপি জমা দেন। ক্লার্ক অ্যাসোসিয়েশনের তরফে জেলা সভাপতি মানিক চন্দ্র বেরা বলেন, অনলাইনে শিক্ষকদের ট্রান্সফার ব্যবস্থা চালু হলেও স্কুল ও মাদ্রাসা করণিকদের সে সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে, এই করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষকদের অধিকাংশ স্কুলে উপস্থিত না হওয়ায় ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থ বিঘ্নিত হচ্ছে, নোডাল শিক্ষকরা অনুপস্থিত থাকায় কন্যাশ্রী-শিক্ষাশ্রী-সবুজ সাথী সহ বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের সুবিধা দেওয়ার কাজ বিঘ্নিত হচ্ছে, নবম-একাদশ শ্রেণীর রেজিস্ট্রেশন, মিড-ডে-মিল কর্মসূচী বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে।



 তিনি আরও বলেন শুধুমাত্র স্কুলের অফিস স্টাফদের দিয়ে এই সকল গুরুত্বপূর্ণ পরিষেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে সামগ্রিক চাপ এসে পড়ছে করণিকদের উপর। এই পরিস্থিতিতে করণিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের পরিষেবা দিয়ে চলেছে, তবুও সরকার করণিকদের প্রতি বিমাতৃসুলভ আচরণ করছে। COVID warriors সুবিধা, ট্রান্সফারের সুবিধা,প্রমোশনের সুবিধা ইত্যাদি থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। কন্যাশ্রীর মতো সারা বিশ্বব্যাপী সমাদৃত প্রকল্পের প্রকৃত রূপকার হওয়া সত্ত্বেও তাঁদের স্বার্থ মানবিকতার সাথে দেখা হচ্ছেনা। অতিরিক্ত জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক তাঁর আয়ত্তাধীন বিষয়গুলিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন এবং তাঁদের স্মারকলিপি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠাবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।



0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670