পুজোর বাজেট কমিয়ে দুঃস্থ মানুষদের পাশে জ্বলন্ত অগ্নি সংঘ ক্লাব


 বাবাই সূত্রধর,দক্ষিণ দিনাজপুর: 


 বিগ বাজেটের দূর্গা পূজা না করে সেই টাকা দিয়ে পূজার পাঁচ দিন মাস্ক,স্যানিটাইজার বিলির পাশাপাশি দুঃস্থ মানুষদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করতে চলেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুরের কালীতলা জ্বলন্ত অগ্নি সংঘ ক্লাব পরিচালিত দূর্গা পূজা উৎসব কমিটি।৩৫ তম বর্ষে থার্মকলের প্যান্ডেল করে দর্শনার্থীদের মধ্যে সাড়া ফেলার চেষ্টা ক্লাব কর্তপক্ষের। শুক্রবার খুঁটি পূজার মধ্য দিয়ে পূজা প্যান্ডেলের কাজের সূচনা করা হয়।যেখানে ক্লাব ও পূজা কমিটির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বাঙালির সেরা উৎসব দূর্গা পুজো।প্রতি বছরই জেলার একাধিক ক্লাব গুলি বিগ বাজেটে তাদের দূর্গা পূজা করে থাকেন।এবছরে করোনার প্রকোপে জেলা জুড়ে যে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে সে দিকে নজর রেখে জেলার বিগ বাজেটের পূজা গুলি তেমন ভাবে করছেন না।

করোনা পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর এর কালীতলা জ্বলন্ত অগ্নি সংঘ ক্লাবের পরিচালিত এবছরে ৩৫তম বর্ষ দূর্গা পূজা বিগ বাজেটে না করে সেই অর্থ দিয়ে পাঁচ দিন মাস্ক,স্যানিটাইজার বিলির পাশাপাশি দুঃস্থ মানুষদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করতে চলেছে এই ক্লাব কর্তপক্ষ।এবছরে থার্মকলের প্যান্ডেল করে দর্শনার্থীদের মধ্যে সাড়া ফেলার চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছেন তারা।প্যান্ডেলে ধীরে থাকছে একাধিক সচেতনতা মূলক বার্তা।শুক্রবার সকালে পুরোহিতের মন্ত্র উচ্চরণের মধ্যে দিয়ে ঢাক, কাশি বাজিয়ে সামাজিক দুরত্ব বজাই রেখে দূর্গা পূজা প্যান্ডেলের খুঁটি পূজা করা হয়।যেখানে উপস্থিত ছিলেন পূজা কমিটির সভাপতি শুভ ঘোষ,সম্পাদক মলয় ঘোষ,কোষাধ্যক্ষ উজ্বল হালদার,অন্যতম সদস্য শংকর তরফদার সহ আরো অনেকেই। এবিষয়ে পূজা কমিটির সম্পাদক মলয় ঘোষ ও অন্যতম সদস্য শংকর তরফদার জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি জন্য আমরা এবার বিগ বাজেটের পূজা না করে অল্প টাকায় পূজা সেরে বাকি টাকা দিয়ে পূজার পাঁচ দিন মার্কস,স্যানিটাইজার বিলির পাশাপাশি এলাকার দুঃস্থ মানুষদের মুখে খাবার তুলে দেবার চেষ্টা করবো।


0/Post a Comment/Comments