বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে আন্দুল রোড পরিবহণ যাত্রী কমিটি দুঃস্থ মানুষের হাতে তুলে দিল খাদ্যদ্রব্য*





আজ 18 ই অক্টোবর 2020 আন্দুল রোড পরিবহণ যাত্রী কমিটির পক্ষ থেকে ভারতীয় নবজাগরণের প্রাণপুরুষ, পার্থিব মানবতাবাদী, মহান শিক্ষাব্রতী ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মবর্ষ পূর্তি উপলক্ষে 60 জন দুঃস্থ মানুষের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়া হল আন্দুল রোড পার্শ্ববর্তী নিত্যানন্দনগর সুজুকী শোরুমের সামনে থেকে।



বিদ্যাসাগরের প্রতিকৃতিতে মাল্যদানের মধ্যে দিয়ে এদিনের অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। মাল্যদান করেন কমিটির বর্ষীয়ান সদস্য অমর কুমার দাস। কমিটির সম্পাদক ও শিক্ষক অভিজিৎ মণ্ডল বলেন, "ধর্ম, বর্ণ, জাত, পাত, ভেদাভেদ সামান্যতম পার্থক্য না করে মায়ের মত হৃদয় নিয়ে গরীব দুঃস্থ অসহায় মানুষের আশা ভরসার স্থল ছিলেন বিদ্যাসাগর। 



জ্ঞানের সাগরে পাড়ি দিয়েছেন তিনি। সত্যের প্রতি তাঁর নিষ্ঠা, আপোষহীন বলিষ্ঠ সংগ্রাম, চির উন্নতশির চরিত্র, শিক্ষা সংস্কারে, সমাজ সংস্কারে, নারীর প্রতি অপরিসীম শ্রদ্ধা নিয়ে জীবনব্যাপী তাঁর সংগ্রাম - এসব বুকে বহন করে চলতে পারলে তবেই তো আমাদের ক্ষুদ্রতম প্রয়াস সফলতার দিকে এগিয়ে যাবে।" এর পর আমাদের চরিত্রে ও মননে বিদ্যাসাগরের প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে বলেন, কমিটির সদস্য ও শিক্ষক শুভময় রায়। কমিটির উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য ও প্রধান শিক্ষক প্রবাল কুমার নস্কর বিদ্যাসাগরের ছবি সামনে রেখে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে, কথার চেয়ে কাজের গুরুত্বের কথা বলেন।


এদিনের কর্মকাণ্ডে উপস্থিত ছিলেন কমিটির সহ সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য অরুপ পান, সহ সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য নীলাদ্রী দেবনাথ, মাধুরী রায় সরকার, শর্মিলা চক্রবর্তী, কোষাধ্যক্ষ সুদীপ্ত মণ্ডল, সদস্য রথীন দে, চিন্ময় রথ, তপন দাস, বিভুপদ ঘোষ প্রমুখ।



অতিমারি সুরক্ষাবিধি মেনে সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালিত হয়। প্রতিজনকে মাস্ক দেওয়া হয়। কৃষ্ণেন্দু সরকার কমিটির পক্ষ থেকে সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। শেষে সম্পাদক অভিজিৎ মণ্ডল সবাইকে অভিনন্দন জানিয়ে কর্মসূচীর সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

0/Post a Comment/Comments