মানবিক মুখ থানা সমন্বয় কমিটির সদস্যদের


 রুপম দাস, হাওড়াঃ 


 বাগনান থানা সমন্বয় কমিটির সদস্যদের তৎপরতায় প্রায় পাঁচ দিন যাবৎ পথের পাশে পড়ে থাকা অসুস্থ মূক ও বধির ভবঘুরে যুবককে চিকিৎসা করিয়ে তার আগের আশ্রয়ে পৌঁছে দেওয়া হল। সোমবার এই মানবিক দৃশ্যের সাক্ষী থাকলেন বাগনানবাসী। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে গত কয়েক দিন ধরে ওই যুবক তীব্র রোগ যন্ত্রণা নিয়ে বাগনানের বেড়াবেড়িয়া শিবতলা এলাকায় রাস্তার পাশে পড়েছিল। দিনে রোদের প্রখরতা ও রাতে মশার কামড়ে ক্রমশই অবসন্ন হয়ে পড়ছিল বছর পঁয়ত্রিশের ওই যুবকের শরীর। কেউ কেউ তাকে খাবার দিলেও একদানা খাবারও মুখে তুলতে পারেনি ওই যুবক। করোনার আতঙ্কে কেউ তাকে স্পর্শ করার সাহস দেখাননি। থানা সমন্বয় কমিটির সদস্য সুপ্রতিম মজুমদার বিষয়টি জানতে পেরে কমিটির সম্পাদক সন্দীপ মজুমদারকে জানান। সন্দীপবাবুর নির্দেশে বিষয়টি থানায় জানানো হলে থানা থেকে তিন জন সিভিক ভলেন্টিয়ারকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। তাঁদের সহযোগিতায় সমন্বয় কমিটির সদস্যরা ওই মূক ও বধির ভবঘুরেকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করান। সঙ্গে ছিলেন থানা সমন্বয় কমিটির আরেক সদস্য অনির্বাণ সামন্ত ও স্থানীয় যুবক শুভম বেরা। খোঁজখবর নিয়ে ওই অসুস্থ ভবঘুরের আশ্রয়দাতারও সন্ধান মেলে। তখন তাকে বেড়াবেড়িয়ার অপর প্রান্তে তার আশ্রয়দাতা নদেবাসী ধাড়ার বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হয়। নদেবাসীবাবু ওই যুবককে দেখভাল করার প্রতিশ্রুতি দেন। নদেবাসীবাবুর বাড়ির কাছেই বাগনান-১ পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি নয়ন হালদারের বাড়ি। তাই পুরো বিষয়টি নয়নবাবুকেও অবগত করা হয়। নয়নবাবুও বিষয়টি দেখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।


0/Post a Comment/Comments