কেন্দ্র সরকারের কৃষি বিলের বিরুদ্ধে কৃষকদের নিয়ে বিক্ষোভ তৃণমূল ছাত্র পরিষদের


নিজস্ব সংবাদদাতা,মালদা:


কেন্দ্র সরকারের কৃষি বিলের বিরুদ্ধে বিরোধীদের বিক্ষোভে উত্তাল সারাদেশ।আর নোটবন্দি, এনআরসি হোক বা সম্প্রতি কৃষি বিল ,কেন্দ্র সরকারের যে কোন নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনে বিরোধীদের অন্যতম মুখ হলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাই কৃষি বিল নিয়ে রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদে নেমেছে তৃণমূল কংগ্রেস।তৃণমূলের মহিলা মোর্চা থেকে শুরু করে যুব, ছাত্র সংগঠন প্রত্যেকের পক্ষ থেকেই বিভিন্ন এলাকায় প্রতিবাদ কর্মসূচি চলছে।কিছুদিন আগে কলকাতার রাজপথে আমরা দেখেছি তৃণমূল ছাত্র পরিষদের কৃষি বিলের বিরুদ্ধে মহামিছিল।আর আজ মালদা জেলা হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ব্লক সভাপতি বিমান ঝা'র নেতৃত্বে কৃষকদের নিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি করা হয়।এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক তথা দাপুটে তৃণমূল নেতা বুলবুল খান,যুব তৃণমূল নেতা স্বপন আলী সহ তৃণমূলের অন্যান্য ব্লক নেতৃত্ব।হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের অন্তর্গত মহেন্দ্রপুরে একটি কৃষি জমির সামনে কৃষকদের নিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি করে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ।শুধু মহেন্দ্রপুরেই নয় হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের কুশিদা,বড়োই, হরিশ্চন্দ্রপুর সহ প্রত্যেকটি এলাকাতেই হয় বিক্ষোভ কর্মসূচি।সেখান থেকে কেন্দ্র সরকারের কৃষি বিলের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলে তৃণমূলের ছাত্র-যুবরা।কৃষিপ্রধান একটি দেশের মেরুদন্ড হল কৃষকরা।দেশের অর্থনীতি অনেকাংশে নির্ভর কৃষি কাজের উপর।সেখানে এই কৃষি বিল হল কৃষক বিরোধী।তাই কেন্দ্র সরকার এই বিল সংশোধন না করলে বা বিল প্রত্যাহার না করলে ভবিষ্যতে আরও বড় আন্দোলনে নামা হবে কৃষকদের সাথে নিয়ে।এমনটাই বলা হয় হরিশ্চন্দ্রপুর ব্লক তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পক্ষ থেকে।

 তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক বুলবুল খান বলেন,"আজ আমাদের ছাত্র পরিষদের ব্লক সভাপতি বিমান ঝা'র নেতৃত্বে হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের বিভিন্ন এলাকাতে কৃষকদের সাথে নিয়ে কৃষি বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ কর্মসূচি হচ্ছে।ছাত্র পরিষদের উদ্যোগকে আমি সাধুবাদ জানাচ্ছি।তাদেরকে বলব ভবিষ্যতে এ ধরনের আরোও কর্মসূচি করা হোক।"সাথেই তিনি মূল্যবৃদ্ধি নিয়েও কেন্দ্র সরকারকে আক্রমণ করেন। হরিশ্চন্দ্রপুর ১ নম্বর ব্লকের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি বিমান ঝা বলেন,"কেন্দ্র সরকার দেশের রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা গুলিকে বিক্রি করে দিচ্ছে।সবকিছুতেই বেসরকারিকরণের পথে হাঁটছে তারা।

এবার তারা কৃষকদের স্বার্থে আঘাত হেনেছে।যেটা আমরা কোনভাবেই মেনে নেব না।আজ ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় প্রতিবাদ কর্মসূচি হচ্ছে।কাল একটি অবস্থান বিক্ষোভের আয়োজন করা হয়েছে।ভবিষ্যতে দরকার হলে কৃষকদের সাথে নিয়ে আমরা আরও বৃহত্তর আন্দোলনে নামবো।" সামনেই আসছে একুশের বিধানসভা।তাই এই সময় কৃষি বিল নিয়ে বিজেপিকে ব্যাকফুটে ফেলতে চাইছে তৃণমূল।সেই লক্ষ্যেই রাজ্যজুড়ে কৃষকদের সাথে নিয়ে চলছে প্রতিবাদ কর্মসূচি।এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।


0/Post a Comment/Comments