রক্তযোদ্ধা_সুলেখা_দাস,,




সুলেখা দাসকে মনে পড়ে?
সরকারে নেই। দরকারে রয়েছেন সুলেখারা। সুলেখারাই আমাদের হিম্মত।




বাগনানের চন্দনাপাড়ার গৃহবধূ সুলেখা দাস। আজ থেকে তিন মাস আগের ঘটনা। রক্তের অভাবে মৃত্যুর মুখোমুখি এক রোগি। রক্তদাতা মিলছিল না।সোশাল মিডিয়ার #ব্লাড_ডোনর_হোয়াটস_অ্যাপ_গ্রুপের পোস্ট দেখে কালক্ষেপ না করে রক্তদানের জন্য আসার পথে জাতীয় সড়কে দুর্ঘটনায় পড়েন । দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিলেন সুলেখা দাস। অপারেশন হয়। পায়ে প্লেট বসে তার। প্রথম দিন থেকেই" 



#ব্লাড_ডোনার_হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ ওনার পাশে ছিল। সার্বিকভাবেই সেই সময় আর্থিক ভাবে যারা "#Blood Donor_WhatsApp_Group"কে #সুলেখা_দাসের অপারেশন এর জন্য আর্থিক সহায়তা করেছেন তাদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। সকলের সহায়তাতেই আজ সুলেখা দাস সুস্থ আছেন। গতকালই ডাক্তারি পরামর্শে ওনার পায়ের প্লেটের স্ক্রু খোলা হয়। আপাতত আগের থেকে উনি অনেকটাই সুস্থ। আমরা নিরন্তর চেষ্টা করেছি দূরে থেকেও ওনার পাশে থাকবার। করোনা পরিস্থিতিতে যখন রক্তদানে বেশিরভাগ মানুষই রক্ত দিতে সম্মত হননি। 



তখন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে উনি জানতে পেরেই থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত এক শিশুর প্রাণ রক্ষা করতে ছুটে আসেন যার সাথে ওনার কোনো রক্তের সম্পর্ক নেই। শুধুমাত্র মানবিকতার টানে উনি ছুটে আসেন । সেই রকম এক রক্তযোদ্ধার দৃষ্টান্ত #সুলেখা_দাস। কোনো প্রতিকূলতাই ওনার কাছে বাঁধা নয়। আজ আমরা কয়েকজন গ্রুপ সদস্য ওনার কাছে দেখা করতে গিয়েছিলাম। ফিরে এলাম রক্তদান আন্দোলনকে শক্তিশালী করার অক্সিজেন পেয়ে। উনি জানিয়েছেন, আমি সুস্থ হলেই আবার মানুষের পাশে দাঁড়াবো, আবার কাজ করবো। সর্বোপরি ওনার নিজের কন্যা  মায়ের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আজ আমাদের জানিয়েছে, সে মায়ের মতোই রক্তদান করতে চায়। মানুষের পাশে থাকতে চায়। দিনের শেষে এটাই তো আমাদের প্রাপ্তি। আমরাও প্রতিটি ঘরে ঘরে এই রকম #সুলেখা_দাস চাই। যারা লড়াই করতে জানে। মানুষের পাশে থাকতে জানে । উনি সাধুবাদ জানিয়েছেন" Blood Donor" WhatsApp  গ্রুপের সেইসব রক্তযোদ্ধাদের। যারা এই করোনা পরিস্থিতিতেও নিরন্তর নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রক্তদান করছেন। আমরাও কুর্নিশ জানাই সুলেখা দাসকে। তার মানবিক আদর্শকে। আপনি খুব তাড়াতাড়ি যেন কাজে ফিরতে পারেন আমরা এটাই চাই। আজ সুলেখা দাসের কাছে গিয়েছিলাম আমরা। সুলেখা দাসের মেয়েও আমাদের কাজে যুক্ত হতে ইচ্ছে প্রকাশ করেছে। কুর্নিশ জানাই রক্তযোদ্ধা #সুলেখা_দাস ও তার পরিবারকে।



এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখা প্রয়োজন ব্লাড ডোনর হোয়াটস‍্যাপ গ্রুপটির ক্রিয়েটর গ্রন্থাগার শাশ্বত পারুই।  গত 06/04/2020তারিখে গ্রুপটি ক্রিয়েট করা হয়। প‍্যান্ডেমিক পরিস্থিতিতে ঠিক যখন সরকার সাধারণ মানুষের মাথার উপর থেকে হাত তুলে নিয়েছে তখন ব্লাড ডোনর হোয়াটস‍্যাপ গ্রুপে যুক্ত বিভিন্ন পেশার মানুষজন যেমন গ্রন্থাগার চাকরিজীবি ছাত্র ছাত্রী যুব নাট‍্যকর্মী শুধুমাত্র মানবিকতার স্বার্থে মানুষের পাশে দাঁড়াতে ভোলেননি।

ব্লাড ডোনর হোয়াটস‍্যাপ গ্রুপ সম্প্রীতির নজির অতীতেও রেখেছে ভবিষ‍্যতেও রাখবে। 
গ্রুপে রক্তদান করেছেন গ্রুপ আডমিন শতাব্দী বেরা সৌমী মাঝিকে। রবীন ব‍্যানার্জী রক্তদান করেছেন মূর্শিদাবাদের কবি নাসির হোসেইনকে। জরুরী অবস্থায় রক্তদান করেছেন শুভ‍্রা ব‍্যা্যানার্জী,দাতা  সোহেল খান।
এইরকম অসংখ্য নজির আছে। ধর্মান্ধতাকে গ্রুপ সদস‍্যরা কখনও বিশ্বাস করেননা। 
তাদের কাছে একটাই ধর্ম প্রধান এবং শ্রেষ্ঠ সেটি মানবিক ধর্ম। 

0/Post a Comment/Comments

AB Banga News-এ খবর বা বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুনঃ 9831738670 / 7003693038, অথবা E-mail করুনঃ banganews41@gmail.com