করোনা যুদ্ধে রাজ্যের প্রথম প্লাজমা ডোনারের স্মৃতিচারণা


নিজস্ব সংবাদদাতা, হাওড়া:  


পাড়ার সমস্ত প্রতিবেশরা তাঁর করোনা হতে ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন । একপ্রকার বয়কট করা হয়েছিল তাঁদের । কিন্তু হার মানেননি তিনি । লড়াই করে সুস্থ হলেন তিনি ।পাশাপাশি সুস্থ হয়ে চিকিৎসার সুবিধার্থে  প্লাজমাও দান করেছিলেন  তিনি। সুস্থ হয়ে করোনা প্রতিরোধের  জন্য প্যানিক না ছড়িয়ে সাবধনতার বার্তা দিচ্ছেন এখন তিনি। তিনি আর কেউ নন। তিনি হাওড়ার  ঘুসুড়ির বাসিন্দা কোলকাতা পুলিশের বৌ বাজার থানার সার্জেন্ট এখলাখ আহমেদ। তিনিই রাজ্যের প্রথম পুলিশ কর্মী যে করোনায়  আক্রান্ত হবার পর সুস্থ হয়ে নিজের প্লাজমা দান করেছিলেন।



হাওড়ার ডোমজুড়ের বাঁকড়ায় গ্রিন লাইফ রিসার্চ অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে করোনা নিয়ে বিশেষ একটি সচেতনতামূলক  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তিনি।সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে রাজ্যের প্রথম প্লাজমা দানকারী পুলিশ সার্জেন্ট এখলাখ আহমেদ এর স্মৃতিচারণায় উঠে এল এইসব নানা প্রসঙ্গ । তিনি বলেন , করোনা নিয়ে আগাম ভয় পাওয়ার কিছু নেই। প্যানিক ছড়াবেন না।সাবধনতা অবলম্বন করুন। ভীড় বা হাটে- বাজারে যাওয়ার সময় মাক্স ব্যাবহার করুন ও স্যানিটাইজ করুন হাত।পাশাপাশি নিজেদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বার্তাও দেন তিনি এদিনের অনুষ্ঠানে। তিনি আরও বলেন , বাইরে থেকে ঘরে এলে সর্বদা হাত- পা ভাল করে ধুতে হবে । শরীরে রোগ পতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ভাল খাদ্যাভ্যাসের দিকে জোর দেওয়ার বার্তা দেন তিনি। অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা ও এই চিকিৎসা পরীক্ষা কেন্দ্রের ডাইরেক্টর হাসান ইয়াজাদআনি জানান , ওনার ও তাঁর পরিবারের সমস্ত সদস্যদের পরীক্ষা তাঁরাই করেছেন ।পাশাপাশি তিনি এই কোভিড পরিস্থিতিতে সমস্ত  স্বাস্থ্য কর্মী ও চিকিৎসকদের  অবদানকে সাধুবাদ জানান।তিনি বলেন দীর্ঘ লকডাউনের জন্য অনেক চিকিৎসক  তিনি বলেন দীর্ঘ লকডাউনের জন্য অনেক চিকিৎসক  ঘরে বসে ছুটে কাটিয়েছেন।আবার অনেকে সমাজের পাশে থেকে রোগীদের চিকিৎসা পরিষেবা দিয়েছেন।সমাজের এই দুর্দিনে যাঁরা এভাবে নিজেদের জীবন বিপন্ন করে লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন তাঁদেরকে এই অনুষ্ঠানে কুর্নিশ জানানো হয়েছে বলে তিনি জানান । 

এই অনুষ্ঠানে এছাড়া উপস্থিত ছিলেন চিকিৎসক মুজিবর রহমান, চিকিৎসক রাজেশ কুমার রজক , মহম্মদ সৈকত আলি, ইমতিয়াজ ভাটিয়া, সি পি ভার্মা,  চিকিৎসক ইজহার আসিফ,চিকিৎসক মুস্তাক আহমেদ,চিকিৎসক ইরসদ আহমেদ, চিকিৎসক  সাহাদাত হোসেন,  চিকিৎসক দেয়াজ আহমেদ, আসিফ ইকবাল,মোহিতোষ মাহাতো , নাজিমা  , প্রিয়া গিরি সহ আরও অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা। করোনা আবহে এইরকম সচেতনতা অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয় সরকারের সমস্ত রকম বিধিনিষেধ মেনে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে । এই অনুষ্ঠানে এদিন উপস্থিত সকলকে মাক্স দেওয়া হয়। বিশিষ্ট জনেদের সম্মানিত করার জন্য  মওলানা আবুল কালাম আজাদ ইন্সটিটিউটের পক্ষ থেকে সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। শনিবার সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠানের সামাজিক সচেতনতা মানুষদের মনকে নাড়াদেয়। এই অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে এলাকায় ভালই সাড়া পড়ে।

0/Post a Comment/Comments

AB Banga News-এ খবর বা বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুনঃ 9831738670 / 7003693038, অথবা E-mail করুনঃ banganews41@gmail.com