শয্যাশায়ী রোগীর পাশে দাঁড়ালেন বাগনান-১ জয়েন্ট বিডিও


 রুপম দাস ,হাওড়া(বাগনান): 

 কিডনির অসুখে শয্যাশায়ী রোগীর জন্য ওষুধ সংগ্রহ করতে বাগনান থেকে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে ছুটলেন বাগনান-১ জয়েন্ট বিডিও সন্দীপ দাস। সেখানকার ন্যায্য মূল্যের ওষুধ দোকানের লাইনে দীর্ঘ দু' ঘন্টা দাঁড়িয়ে থেকে অবশেষে ওই রোগীর ওষুধ সংগ্রহ করে ফেরেন সন্দীপবাবু। বাগনানের পূর্ণাল গ্রামের এক দুঃস্থ ব্যক্তি দীর্ঘদিন যাবৎ কিডনির অসুখে ভুগছেন। তাঁর একটা ওষুধ কোথাও পাওয়া যাচ্ছিল না। বিষয়টি তিনি ফোন করে বাগনান-১ বিডিও সত্যজিৎ বিশ্বাস জানান। তিনি তৎক্ষণাৎ বাগনান-১ ব্লকের ওসি হেলথের দায়িত্বে থাকা জয়েন্ট বিডিও সন্দীপ দাসকে বিষয়টি দেখেতে বলেন। উল্লেখ্য, বিডিও সত্যজিৎবাবুর মতোই সন্দীপবাবুও এলাকায় অত্যন্ত মানবিক প্রশাসক হিসাবে সুপরিচিত। তাই সন্দীপবাবু বিষয়টি জানতে পেরেই সর্বত্র ওষুধের জন্য খোঁজখবর শুরু করে দেন। কিন্তু সারা জেলায় কোথাও ওষুধটি পাওয়া যায়নি। এদিকে অসুস্থ অমলবাবু রোগ যন্ত্রণায় আরও কাহিল হয়ে পড়ছিলেন। শেষমেষ জানা যায় এই ওষুধটি একমাত্র এসএসকেএম হাসপাতালের ন্যায্যমূল্যের দোকান থেকে পাওয়া যেতে পারে। সন্দীপবাবু আর কালবিলম্ব না করে তৎক্ষণাৎ এসএসকেএম হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সেখানে তখন চিকিৎসকদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করেছে। সেখানে থাকলে তাঁরও করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা ছিল, তবুও নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সন্দীপবাবু ন্যায্য মূল্যের ওষুধ দোকানের দীর্ঘ লাইনের পিছনে গিয়ে দাঁড়ান। নিজের পরিচয় দিয়ে লাইন এড়িয়েও সরাসরি কাউন্টারের ভিতর থেকে ওষুধ নেওয়ার সুযোগ তাঁর ছিল। কিন্তু তিনি নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার না করে আর পাঁচজন সাধারণ মানুষের মতোই ওষুধ দোকানের লাইনে দীর্ঘ দু' ঘণ্টা দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করেন। অতঃপর ওষুধ সংগ্রহ করে তিনি সোজা বাগনানে ফিরে আসেন। সেই ওষুধ সম্পূর্ণ বিনামূল্যে তুলে দেওয়া হয় আক্রান্ত রোগীর হাতে। বিডিও এবং জয়েন্ট বিডিওর এই নীরব ভূমিকার কথা গোপনীয়তার মোড়কেই থেকে যায়। বিডিও অফিসের কর্মীদের কাছ থেকে এই ঘটনার কথা জানাজানি হলে স্থানীয় বাসিন্দারা প্রশাসনের এই মানবিক মূল্যবোধকে সাধুবাদ জানান। বাগনান কলেজের অধ্যাপক আক্রামূল হক বিষয়টি জেনে বলেন এখনও এই ধরনের মানুষ রয়েছেন বলে পৃথিবীটা সুন্দর রয়েছে। এনারাই হলেন সমাজের প্রকৃত অলংকার।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670