মালদার হরিশ্চন্দ্রপুরে বোমাতাঙ্ক, দুস্কৃতীদের তল্লাশিতে পুলিশ




মালদা;


: ভরদুপুরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় চাঞ্চল‍্য ছড়াল মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরে।
 
রবিবার ভর দুপুরে ওই ঘটনাকে ঘটনায় ব‍্যাপক  চাঞ্চল্যের সাথে  ছড়াল আতঙ্ক স্থানীয়দের মধ‍্যে।

 মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরের তুলসিহাটা দৈনিক বাজারের অদূরে একটি অবৈধ মদের ঠেকে বোমা ফাটিয়েছে দুষ্কৃতীরা, বলে অভিযোগ বাসিন্দা সহ স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস‍্যের।
 
ঘটনার খবর পেয়ে  হরিশ্চন্দ্রপুর থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে ঠেকের মালকিনকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর।




 কারা বোমা ফাটিয়েছে তা জানতে মহিলাকে জিজ্ঞাসাবাদ চালানো হচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। 

যদিও ঘটনার জেরে এলাকাজুড়ে প্রবল ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ ঠেকটি চললেও পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছিল না বলে অভিযোগ। এমনকি আটক মহিলা মাম্পি দাস শাসকদলের ছত্রছায়ায় থেকে ঠেক চালাচ্ছিলেন, উঠেছে এমন অভিযোগও। পুলিশ অবশ্য সব খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, তুলসিহাটা দৈনিক বাজারের পাশ দিয়ে ছত্রক যাওয়ার রাস্তায় যোত বহরমপুর পাড়ায় দীর্ঘদিন ধরেই ঠেকটি চলছে। সন্ধের পর তো বটেই, সারাদিন ধরেই সেখানে এলাকার দুষ্কৃতীরা জড়ো হয়ে আসর বসায় বলে অভিযোগ। স্বামী পরিত্যাক্তা মাম্পি কয়েক বছর ধরেই ঠেকটি চালাচ্ছিলেন। এমনকি সেখানে তিনজন লেঠেল রাখা হয়েছিল বলেও স্থানীয় সূত্রে খবর। বাসিন্দারা একাধিকবার ঠেকটির বিরুদ্ধে সরব হলেও ফল হয়নি বলে অভিযোগ। গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে মাম্পি শাসকদলের হয়ে সামনে থেকে প্রচার চালিয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন বাসিন্দারা। আর শাসকদলের ছত্রছায়ায় থাকায় ঠেকটি তোলা নিয়ে পুলিশ নীরব ছিল কি না সেই প্রশ্নও উঠতে শুর করেছে। এরই মধ্যে এদিন দুপুরে আচমকাই ঠেকে বোমা ফাটার শব্দে কেঁপে ওঠে লাগোয়া এলাকা। ঠেকের পিছনে দুই দুষ্কৃতী বোমা ফাটায় বলে প্রাথমিকভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে। তবে হতাহতের কোনও খবর নেই বলে পুলিশ জানিয়েছে।
এবিষয়ে মালদা জেলা পরিষদের শিশু, নারী ও ত্রান কর্মাধ্যক্ষ মার্জিনা খাতুন জানান, ঘটনা কি জানিনা। তবে এই আতঙ্কের মাঝে আবারও কৃত্রিমভাবে এলাকায় আতঙ্ক  সৃষ্টি করলে পুলিশ প্রশাসন যথাযথ আইনত ব‍্যবস্থা গ্রহন করবে বলে আশাবাদী ওই কর্মাধ‍্যক্ষের।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670