করোনা আতঙ্কের মধ্যে এলাকার গরীব দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাড়িয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল একটি ক্লাব।





বাবাই সূত্রধর,দক্ষিণ দিনাজপুর ,১৪মে;


করোনা আতঙ্কের মধ্যে এলাকার গরীব দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাড়িয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল একটি ক্লাব।বৃহস্পতিবার দুপুরে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুরের ১৫নম্বর ওয়ার্ডের শিববাড়ি এলাকায় ইয়ুথ স্পিরিট অ্যান্ড কালচারাল ক্লাবের তরফে বিলি করা হয় ত্রাণ সামগ্রীগুলো।

ক্লাব কর্তপক্ষের দাবি আগামী   তিন দিন ধরে  এলাকার প্রায় সমস্ত দুঃস্থ মানুষদের   চাল,আলু বিলি করা হবে।এদিন প্রাপকদের ক্যামেরার সামনে  মুখের ছবি না দেখিয়ে  এক অন্য বার্তা দিয়েছেন সমাজকে।এমন দিনে সাহায্য পেয়ে দারুন খুশি প্রাপকেরা।


                  দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর ১৫নম্বর ওয়ার্ডের শিববাড়ি এলাকায় বহু বছর ধরে অবস্থিত ইয়ুথ স্পিরিট অ্যান্ড কালচারাল ক্লাবটি।

সারা বছরই যেভাবে ক্লাবটি সাধারণ মানুষের পাশে দাড়িয়ে কাজ করে থাকেন, তাতে এলাকাই খুব প্রশংসিত লাভ করেছেন ক্লাবটি।বিগত দিনে ভয়াবহ বন্যা সময় ত্রাণ নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিল ক্লাবের কর্মকর্তারা। 

বর্তমানে করোনা আতঙ্কে র থাবা বসিয়েছে দেশজুড়ে, ফলে দেশ জুড়ে চলছে লক ডাউন। লক ডাউন এর ফলে দিন এনে দিন খাওয়া মানুষেরা পড়েছে দুর্বিপাকে। তাই লক ডাউন এর মধ্যে গরীব দুঃস্থ মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন ইয়ুথ স্পিরিট অ্যান্ড কালচারাল ক্লাবটি।

এদিন ১৫নম্বর ওয়ার্ডের শিববাড়ি এলাকায় প্রায় ৫০০ টি পরিবারের সদস্যদের চাল, আলু দিয়ে সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেন তারা। ক্লাব কর্তৃপক্ষের দাবি তিন দিন ধরে তারা ত্রাণ সামগ্রী বিলি করবেন।

 সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এদিন ত্রাণ সামগ্রী বিলি করা হয়। যেখানে উপস্থিত ছিলেন, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তথা ইয়ুথ স্পিরিট অ্যান্ড কালচারাল ক্লাবের সভাপতি জয়ন্ত কুমার দাস, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দীনেশ হেমরম, ক্লাবের অন্যতম সদস্য তথা বিশিষ্ট সমাজসেবী লক্ষী কান্ত সরকার,গৌর সাহা,আশীষ দেব,কৃষ্ণ নন্দী,সুধীর সরকার,আনন্দ সাহা,তাপস পাল,শিবু সরকার,অর্জুন মার্ডি সহ আরো অনেকেই। 

এদিন ক্লাব কর্তপক্ষ  ক্যামেরার সামনে প্রাপকদের মুখের ছবি না দেখিয়ে  এক অন্য রকম বার্তা দিয়েছেন সমাজকে।
এবিষয়ে ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তথা ইয়ুথ স্পিরিট অ্যান্ড কালচারাল ক্লাবের সভাপতি জয়ন্ত কুমার দাস জানিয়েছেন, চারদিকে করোনা আতঙ্কের জন্য সাধারণ মানুষ খুবই অসুবিধার মধ্যে পড়েছে। 

তাই এলাকার মানুষদের সাহায্যের জন্য তিন দিন ধরে প্রায় ৫০০ টি গরীব দুঃস্থ পরিবারের সদস্যদের হাতে চাল,আলু  দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। যেহেতু করোনা আতঙ্কের পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন সাধারণ মানুষ তাই ক্যামেরার সামনে প্রাপকদের মুখে ছবি না দেখানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তথা ক্লাব সদস্য দীনেশ হেমরম জানিয়েছেন, করোনা আতঙ্কের মধ্যে সমস্যায় পড়া এলাকার গরীব দুঃস্থ মানুষদের জন্য ক্লাবের তরফ থেকে আমরা ত্রাণ সামগ্রী দিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলাম।


ক্যামেরার সামনে মুখ না দেখিয়ে এক প্রাপক জানিয়েছেন, এমন সময় এই ক্লাবটি আমাদের সাহায্য করায় আমরা দারুন খুশি হয়েছি। ধন্যবাদ জানাই ক্লাব কর্তৃপক্ষকে।

তিনদিন ধরে ত্রাণ বিলি এমন উদ্যোগ নেওয়া ক্লাব কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন জানিয়েছে শহরবাসী।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670