খোলা চিঠি,



,

পিয়ালী কুমার,


ক্ষমা করবেন মন্ত্রীমশাই! ৫ই এপ্রিল আপনার 'হিতোপদেশ' অনুযায়ী আমি রাত্রি ৯:০৯ মিনিটে বাড়ির সমস্ত বৈদ্যুতিক আলো নিভিয়ে বাতি জ্বালিয়ে প্রার্থণায় বসতে পারবো না। 

এতদিন পর্যন্ত আমি আমার দিনআনা -দিনখাওয়া পরিবারবর্গকে নিয়ে সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেছি, এমনকি বাড়িতে একজন সিরিয়াস হার্টের পেসেন্ট থাকা সত্বেও 'লক্ ডাউন' নির্দেশ সাধ‍্যমতো মেনে চলছি। 




শুধু তাই নয়, আপনার ১৯ শে মার্চের 'হিতোপদেশ' অনুযায়ী ২২শে মার্চ সারাদিন বাড়ির বাইরে পা রাখিনি বা পরিবারের কাউকে রাখতে দিইনি। না সেদিনেও আমি আপনার হাততালি, ঘন্টা, শাঁখ, থালা বাজানোর পরামর্শকে মানতে পারিনি। 

পারিনি কারন,  এগুলোর সাথে বিঞ্জানের সম্পর্ক কোথায়? আপনি অবশ্য বলেছিলেন, 'ইত্যাদি' বাজানোর মাধ্যমে এমারজেন্সি সার্ভিসের সঙ্গে যুক্ত ডাক্তার, নার্স, মেডিকেল স্টাফ, পুলিশ' এদের উৎসাহিত করতে। 

না এদের পরিসেবার কথা অগ্রাহ্য করছিনা, এরা যেভাবে উপযুক্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা ছাড়া নিজেদের জীবনের পরোয়া না করে আমাদের জন্য নিরালস পরিশ্রম করে চলেছেন, তাকে কুর্নিশ জানানোর ভাষা বোধহয় অভিধানে নেই। কিন্তু এই মানুষগুলির জন্য কেবল 'উৎসাহই' কি যথেষ্ট??? PPE, N95 MASK, HAND SANITIZER সহ প্রয়োজনীয়  REQUIREMENTS কোথায়?

 উল্টে এই অভাবের সময় আপনার নির্দেশে 90 টন N95 Mask সহ প্রয়োজনে তিনটি দ্রব্য রপ্তানি হচ্ছে সার্বিয়া, মালদ্বীপের মতো ধনী দেশে(তঃসূঃ- আনন্দবাজার পত্রিকা, ANI)। 
      ভারতে প্রথম করোনা আক্রান্তের হদিস পাওয়া যায় সরকারি তথ্য অনুযায়ী ৩০/০১/২০২০। ঠিক এর তিন দিনের মধ্যে ০৩/০৩/2020 বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা #WHO, সতর্কবার্তা পাঠায়। অথচ আপনি আপনার দেশবাসীর জন্য কি পরিকল্পনা করেছিলেন? 

আপনার অনুগত ভক্তবৃন্দ সেসময় যে গোমূত্র সেবনে মত্ত হয়ে উঠেছিল, একথাও নিশ্চয় আপনার অগোচরে ছিল না। তাদের বিরত করা অনেক পরের বিষয়, উল্টে আপনার নিরাবতাই তাদের উৎসাহিত করেছিল, একথা বললে কি অত‍্যুক্তি হয়ে যাবে? 


            অন্তত দ্বায়িত্ব নিয়ে বিভিন্ন রাজ‍্যে ছড়িয়ে থাকা অসংগঠিত শ্রমিকদের জন্য কোনও সুনিশ্চিত পরিকল্পনা কি করা যেত না? এটা কি সত্যিই আপনার দূরদর্শিতার অভাব!!(???) নাকি এই হতদরিদ্র মানুষগুলো আপনার ' তলিকার অন্তর্ভুক্ত নন? যদিও আপনার বর্তমান আচরণে দ্বিতীয় বিষয়টিই সত্য হিসাবে ধারণা হয়। 

না হলে কয়েকশো মাইল হেটে বাড়ি ফেরা ক্ষুধা-তৃষ্ণায় কাতর পরিশ্রমে ভেঙ্গে পড়া মানুষগুলো গায়ে আপনারই শিক্ষার শিক্ষিত আপনার দলের উত্তর প্রদেশের মুখ‍্যমন্ত্রী যোগী(!!!) আদিত‍্যনাথ শুদ্ধিকরণের নামে কীটনাশক ছড়িয়ে আরও শারীরিক ক্ষতির দিকে ঠেলে পারত না, যা কিনা কোন বিবেকবান মানুষ পশুর সাথেও করতে পারবেন না।

 অথচ আপনি আমাদের অভিভাবক, এই চরম অমানবিক ঘটনায় পরেও নিশ্চুপ, যোগনিদ্রায় মগ্ন। তাইতো ২৫০ মাইলের উপর পায়ে হেঁটে ঘরে ফেরার আগেই ক্ষুধা-তৃষ্ণা-পরিশ্রমে অথবা পথেই লড়ির চাকায় পিষ্ঠ হয়ে মৃত শ্রমিকগুলির পরিবারের আর্তনাদ আপনার যোগনিদ্রায় ব‍্যাঘাত ঘটাতে পারেনি।  এই দুঃসময়ে আমরা নুন‍্যতম স্বাস্থ্য পরিষেবা থেকেও আমরা বঞ্চিত। এই সময় সরকার কি সমস্ত সম্ভাবনাময়  ল‍্যবরেটরিগুলিকে ক্ষমতাবলে নিজের আয়ত্তে এনে উপযুক্ত পরিমাণে কিড্ প্রস্তুত করে এলাভিত্তিক মাসটেস্ট করানোর উদ্দোগ নিতে পারতেন না? থানাভিত্তিক ভেন্টিলেশন সিস্টেম কোথায়?  (এখানে উল্লেখ্য রাজ‍্যের মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও এদ্বায়িত্ব নিতে পারতেন।) এসব না করে আপনি লাইফ সেভিং ড্রাগের উপর extra 7-12% GST চাপালেন।


 বাজারে এখনও মাক্স, স‍্যানেটাইজার, হ‍্যাণ্ডওয়াসের দেখা নেই। বাকিগুলো না হয় ছেড়েই দিলাম, বর্ধিত ট‍্যাক্সের টাকায় রাজ‍্য ও কেন্দ্র উভয় সরকার দ্বায়িত্ব নিয়ে শেষের তিনটি জিনিস কি বাড়ি বাড়ি পৈঁচ্ছে দেবার ব‍্যবস্থা করতে পারতো না। এটুকু দাবি করাও কি অন‍্যায়? একবারও কি ভেবে দেখেছেন এই দির্ঘ লক্ ডাউন পিরিওডে আপনার দেশের ৭০% দিনমজুর পরিবারগুলো কি খাবে? না আমরা মন্ডা- মিঠাই খেতে চাই না, ডাল-ভাতই বা পাব কোথায়? কিন্তু মোদিজি, আপনি যে যোগনিদ্রায় আচ্ছন্ন, একথাই বা মেনে নিই কিভাবে? বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম যেখানে ব‍্যারেল প্রতি অর্ধেক হয়ে গেছে, আপনি সেখানে দাম কমানো তো ছাড়ুন  উল্টে পেট্রোল-ডিজেলে লিটারে ২টাকা বর্ধিত ট‍্যাক্স বসিয়ে দিলেন।





 পেট্রোল-ডিজেল যে পাবলিক টান্সর্পোটে ক্ষেত্রে অপরিহার্য একথা সবাই জানে, ফলে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস পত্রের দাম যে অবস্মভাবীরূপে বৃদ্ধি পাবে এটা বোঝার জন্য নিশ্চিত দূরদর্শিতার প্রয়োজন নেই।  

তাছাড়া এই সংকট কালে বর্ধিত ট‍্যাক্সের টাকাগুলো চিকিৎসা পরিসেবাতে  বরাদ্দ হল না কেন? তাহলে এই ট‍্যাক্স আদায় করে দেশের কি উপকার হবে?
       আবার আমাদের থেকে মুড়ে-মাচুড়ে ট‍্যাক্স আদাই করে আপনি এবং আমাদের দিদি গাল ফুলিয়ে বলে বেড়াচ্ছেন ১৫০ কোটি দিলাম(১৫০কোটি÷১৩৩কোটি দেশবাসী) বা ২০০ কোটি টাকার ফান্ড তৈরি করেছি। এমন করে বলেন যেন মনে হয় আপনাদের পকেট থুড়ি ব‍্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে দিচ্ছেন। 


       আপনার এই 'হিতোপদেশ' শুনে আশঙ্কা মনে জাগে। বারে বারে মনে পড়ে যায় শ্রদ্ধেয় সত‍্যজিৎ রায়ের 'বিরিঞ্চি বাবা' অনুকরণে 'কালপুরুষ ও মহাপুরুষ' সিনেমার দৃশ‍্যগুলি। মনে পড়ে যায়, 'বিরিঞ্চিবাবা'র সূর্যকে ঘুম থেকে তোলা সহ বিভিন্ন মিথ্যে ভরংগুলির কথা।  তার পরেরটা আমরা সবাই জানি। তাই ভয় হয়, আপনার এই 'হিতোপদেশ' গুলির মধ্যে বিশেষ কোনো উদ্দেশ্য নেই তো...। 





তাই আমরা আপনার 'হিতোপদেশ'এর সর্বোত্তম নিন্দা করে সদর্পে বলতে চাই,  'বিজলিবাতি আমরা নেভাবো না, বাতি আমরা জ্বালবো না। শুধু তাই নয়, ভবিষ‍্যতেও আপনার কোন অবৈঞ্জানিক সিদ্ধান্ত আমরা মানব না'‌
     অনেকে (এর মধ‍্যৈ নিশ্চয় মাইনে করা আইটি সেল বা গোমূত্র সেবনকারি রা পড়েন না, তারা দূরত্ব বজায় রাখুন।) হয়ত বলবেন, এর মধ্যে দিয়ে মোদীজি দেশবাসী কে কোরনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একত্রীকরণের আহ্বান দিচ্ছেন।

 কিন্তু ভেবে দেখুন তো একবার- বিশেষ একটি ধর্মীয় রীতি অনুসরণের 'আহ্বানের' মধ্যে কি বিভাজনের বার্তা লুকিয়ে নেই? নাকি ধর্মীয় রীতি অনুসরণ ছাড়া ঐক্যবদ্ধ হওয়ার উপায় নেই?


বি:দ্রঃ:- কেবলমাত্র চিন্তাশীল ও যুক্তিসঙ্গত মন্তব্যই একান্তভাবে কামনা করি।

মতামত সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত,,

0/Post a Comment/Comments

AB Banga News-এ খবর বা বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য যোগাযোগ করুনঃ 9831738670 / 7003693038, অথবা E-mail করুনঃ banganews41@gmail.com