অভিযুক্তদের ধরতে গিয়ে আক্রান্ত মালদা জেলার চাঁচল থানার পুলিশ





মালদা; ২৯ এপ্রিল: 

হাওড়া টিকিয়াপাড়ার পর মালদা জেলার চাঁচলেও  আবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটল। এ বারও আক্রান্ত হল পুলিশ। 



ঘটনাটি ঘটেছে চাঁচল থানার থানা এলাকার কনুয়ায়। ঘটনায় প্রকাশ, মঙ্গলবার চাঁচল থানার পুলিশ পুরনো একটি মারপিটের ঘটনায় জড়িত অভিযুক্তদের খোঁজে কনুয়ায়  যায় পুলিশ। 


ওই সময়ে এলাকার কিছু বাসিন্দার দ্বারা আক্রান্ত হয় চাঁচল থানার পুলিশ ।চাঁচল থানার কনুয়া গ্রামে দুষ্কৃতীদের হামলায় জখম হয়েছেন চার পুলিশ কর্মী। 



পুলিশকে লক্ষ্য করে যথেচ্ছ ইট ছোড়া হয় বলে খবর। উঠেছে বোমাবাজির অভিযোগও। জেলার পুলিশ সুপার-সহ উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে গিয়েছেন। 

মারপিটের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে চারজনের খোঁজে মঙ্গলবার রাত আড়াইটে নাগাদ কনুয়া গ্রামে হানা দেয় পুলিশ। ওই অভিযুক্তদের বাড়ি ঘিরে ফেলতেই শুরু হয় পুলিশকে লক্ষ্য করে হামলা।



 পুলিশের দু’টি গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর করা হয়। ছুটে আসা ইটের আঘাতে চার পুলিশ কর্মী  জখম হন। এলাকায় যথেচ্ছ বোমাবাজিও করা হয় বলে অভিযোগ। সূত্রের খবর অবস্থা সামাল দিতে টিয়ার গ্যাসের সেল ফাটাতে হয় পুলিশকে। 

হামলাকারীদের হটাতে লাঠিচার্জও করা হয়। পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় পরে বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। পরে তল্লাশি চালিয়ে হামলায় উস্কানি দেওয়ার অভযোগে অলিহন্ডা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামী তথা তৃণমূল নেতা  আনসার আলি সহ চারজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। এই ঘটনায় ৪ পুলিশ কর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। ভাঙচুর করা হয়েছে পুলিশের গাড়ি ও।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670