আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষের পৌষ সংক্রান্তি পালন,

রীতা ভট্টাচার্য,

কালনা,




 কালনার শিকার পুর ঝাপান তলা ও কালনার একচাকা গ্রামে মহাধুমধামের সঙ্গে আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষরা তাঁদের পড়ব পৌষসংক্রান্তি পালন করে, 




 পৌষ পার্বন আদিবাসীদের পড়ব, এই সময় তারা নতুন জামা কাপড় কিনে পরে, আতপ চাল ভিজিয়ে ঢেঁকিতে কুটে, চাল ঝেড়ে তা দিয়ে পিঠে করা হয়, 
মকরসংক্রান্তির আগের দিন আদিবাসীরা তাঁদের সুন্দর সুন্দর মাঠির ঘর, উঠান লেপে, আল্পনা দেয়,ঘর বাড়ি পরিষ্কার করে, আর সন্ধ্যে বেলাতে মাংসোর পিঠে বানায়, 




একে অপরের বাড়ি পিঠে পৌছিয়ে দেয়, সারারাত নাচ গান চলে, 

মাদলের তালে তালে তারা নাচ করে, এই অনুষ্ঠান চলে তিনদিন ব্যাপী, মকরসংক্রান্তির দিন তীর ধনুক খেলা হয়, যাকে বলে পিঠে ফোর, কলাগাছ ফোর, 

সংস্কৃত গল্পে "মূর্খচতুর্নাঙ্ পন্ডিতানাং কথা"গল্পে পিঠে শব্দ টির কথা পাওয়া যায়, 




পিঠে অতি প্রাচীন শব্দ, কালনার শিকার পুর ঝাপান তলা ও কালনার একচাকা গ্রামে মহাধুমধামের সঙ্গে আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষরা তাঁদের পড়ব পৌষসংক্রান্তি পালন করে, আদিবাসীরা পৌষসংক্রান্তি দিন বিকালে তীর ধনুক খেলা করে, 

এই খেলা তে পুরস্কার বিতরণ করা হয়,একটা কলা গাছকে ফোর বলে, কলা গাছকে আদিবাসীরা শিকারমনেকড়ে,




 তাই তারা কলাগাছকে লক্ষ্য করে তীর নিঃক্ষেপ করে,তীর ধনুক খেলা সম্পূর্ণ হলে, 

তীর নিক্ষেপ করা কলাগাছকে শিকারের অনুকরণ করে কাঁধে নিয়ে মাদল বাজিয়ে নাচ করতে করতে মোড়লের বাড়ি যায়, সারারাত আনন্দ করে

0/Post a Comment/Comments