-‌বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেম,পরে নারাজ,

মালদা, ৯ ডিসেম্বর,




-‌বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেম। পরে বিয়েতে নিমরাজি প্রেমিকের।
 উল্টে প্রেমিকাকে তার রাস্তা সরে যাওয়ার জন্য চাপ। প্রেমিকা না সরায় তাঁকে ব্যাপক মারধরের অভিযোগ প্রেমিকের বিরুদ্ধে।

 সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস জড়িয়ে আত্মঘাতী প্রেমিকা।

 চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ইংলিশবাজার থানার ঝলঝলিয়ার তেলিপুকুর এলাকার। ঘটনার পরই পুলিশ অভিযুক্ত প্রেমিককে গ্রেপ্তার করেছে। 

জানা গেছে, আত্মঘাতী প্রেমিকার নাম পঞ্চমী বোরো(‌২০)‌। 

বাবা অজয় বোরো পেশায় হোটেল কর্মী। ৩ ভাই-‌বোনের মধ্যে প্রতিমা ছিলেন সবার ছোট। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত প্রেমিকের নাম গৌরব পাশোয়ান। 

বছর তিনেক ধরে তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। এমনকী মৃতার পরিবার মেনে নেয় তাঁদের সম্পর্ক। তিন্তু অভিযুক্ত প্রেমিকের পরিবারের লোকেরা তা মেনে নিতে পারে নি। 

গৌরব বাড়ির অমতেই বিয়ে করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছিল। পঞ্চমীরে বাড়িতে তাঁর অবাধ যাতায়াত ছিল। 

রবিবার সে এক বন্ধুকে সঙ্গে করে নিয়ে আসে পঞ্চমীর বাড়িতে। সন্ধের দিকে ব্যাপক মারধর করে পঞ্চমীকে বলে অভিযোগ। 

মৃতার বৌদি করবী বোরো ছুটে এলে রক্ষা পান পঞ্চমী। এই ঘটনার পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান। গলায় তাঁর চাদর জড়ানো ছিল। 

মৃতার দাদা সঞ্জয় বোরো অভিযোগ করে বলেন,‘‌আমরা সবাই সন্ধের দিকে কাজে ছিলাম। ওই সময় গৌরব তার এক বন্ধুকে সঙ্গে করে নিয়ে এসে বোনকে ব্যাপক মারধর করে।

 এর আগেও সে বোনকে মারধর করেছে। গৌরব বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বোনকে ফাঁসায়। আমাদেরও বোনকে বিয়ের কথা বলে।

 কিন্তু কিছুদিন আগে শুনতে পাচ্ছি, সে আর বোনকে বিয়ে করতে চায় না। 

বোনকে তার রাস্তা থেকে সরে যেতে বলেছে। এরপর থেকে বোন অবসাদে ভুগতে থাকে। 

গৌরবের জন্যই আমার বোনের মৃত্যু হয়েছে।’‌ ঘটনার পর রাতেই পুলিশ অভিযুক্ত গৌরব পাশোয়ানকে গ্রেপ্তার করেছে।

0/Post a Comment/Comments