পঞ্চায়েতস্তরে দলের সংগঠন কে আরো বেশি করে শক্তিশালী করে তুলতে এক কর্মশালার আয়োজন,

বাবাই সূত্রধর, গঙ্গারামপুর,

 ২৭ নভেম্বর , দক্ষিণ দিনাজপুর ,




۔পঞ্চায়েতস্তরে দলের সংগঠন কে আরো বেশি করে শক্তিশালী করে তুলতে এক কর্মশালার আয়োজন করা হয়,

 বুধবার সকাল থেকেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেস কমিটির পক্ষে গঙ্গারামপুরের রবীন্দ্র ভবনের এদিন এই অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয়। যেখানে তৃণমূল থেকে নির্বাচিত গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান,উপপ্রধান, 

পঞ্চায়েত সদস্য ,পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য,জেলা পরিষদের সদস্য থেকে শুরু করে অঞ্চল প্রধান ও বিশিষ্ট নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন।

প্রায় এক হাজারেরও বেশি এমন নেতৃত্বরা এদিনের অনুষ্ঠানে রবীন্দ্রভবন উপস্থিত হয়েছিল ।



 

তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে এমন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পরীক্ষা ব্যবস্থা করা হচ্ছে যেন ভালো রেজাল্ট করা যায়।

 এখন পঞ্চায়েত স্তরের প্রতিনিধিরাই তাদের সংগঠন কে ঢেলে সাজাবেন , আগামী দিনে আরো উন্নয়নকে সামনে রেখে তৃণমূল কংগ্রেস ব্যাপক ভোটে জয়লাভ করবে।

 গত লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী অর্পিতা ঘোষ এ জেলাতে হেরে যাওয়ার পরেই তৃণমূল দলের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাকে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা সভাপতির দায়িত্ব তুলে দেন, অর্পিতা জেলার তৃণমূলের সভাপতি হওয়ার পরেই দলের সংগঠনকে চাঙ্গা করতে তিনি দিনরাত এক করে দিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন।

শুরুতেই তিনি পুরনো মুখদের দলে ফিরিয়ে নিয়ে এসে তাদের দলের দায়িত্ব তুলে দেন ,বিগত দিনের জেলা সভাপতি ঠিক তার উল্টো পথে হেটে জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ দলের সংগঠনকে চাঙ্গা করে তোলার চেষ্টা করছেন।




জেলা কমিটি তৈরি করে দুই মহকুমা থেকে দু'জনকে কার্যকারী সভাপতি করা হয়। গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয় বালুরঘাটের তৃণমূল নেতা দেবাশিস মজুমদারকে,তাকে জেলার কার্যকারী সভাপতি নিয়োগ করা হয়।

তৈরি করেন জেলা কমিটি বিভিন্ন বিধানসভার চেয়ারম্যান ،অঞ্চল সভাপতিও। সাজিয়ে তোলেন তৃণমূল শ্রমিক সংগঠন মহিলা থেকে শুরু করে বিভিন্ন তৃণমূলের শাখা সংগঠনগুলি কেউ।

ইতি মধ্যেই তৃণমূলের রাজনৈতিক পরামর্শদাতা প্রশান্ত কিশোর জানিয়ে দিয়েছেন উত্তরবঙ্গ থেকে ফিরছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

বেশ কিছুদিন ধরে দিদিকে বলো প্রচার ও যেভাবে বিজেপি থেকে হাজার হাজার কর্মী শাসক দলের নাম লেখাচ্ছে তাতে তৃণমূলের সংগঠন শক্তিশালী হয়েছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ ।

এবার শাসক দলের জেলা কমিটি পঞ্চায়েত স্তরে তাদের সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করতে রাজনৈতিক কর্মশালার আয়োজন করল।

সেখানে জেলার আটটি ব্লক থেকে হাজারের উপরে তৃণমূল দল থেকে জয়ী হওয়া নির্বাচিত গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতি,জেলা পরিষদের সদস্য, প্রধান, উপপ্রধান থেকে শুরু করে বুধ অঞ্চলে দায়িত্বে থাকা সমস্ত কর্মী-সমর্থকরা এদিনের এই কর্মশালায় উপস্থিত হন।


 পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ ।

সেখানে তৃণমূলের জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ,কার্যকারী সভাপতি দেবাশীষ মজুমদার, রাজ্যের মন্ত্রী তথা তপনের বিধায়ক বাচ্চু হাঁসদা ,কুমারগঞ্জের বিধায়ক তোরাব হোসেন মন্ডল, গঙ্গারামপুর এর বিধায়ক গৌতম দাস,জেলা পরিষদের সহকারি সভাধিপতি ললিতা টিগ্গা ,গঙ্গারামপুর বুনিয়াদপুর ও পুরসভার চেয়ারম্যান অমল সরকার ,অখিল চন্দ্র বর্মন ,মহিলা,ছাত্র,যুব ,ছাত্র ও শ্রমিক সংগঠনের জেলা সভাপতি ,মাহমুদা বেগম ,অতনু রায় ,অম্বরিশ সরকার ,মজির উদ্দিন মন্ডল ,তৃণমূলের জেলা নেতা প্রবীর রায় ,অশোক বর্ধন রাকেশ পন্ডিত সহ বিশিষ্ট তৃণমূল নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

তৃণমূলের জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষ জানিয়েছেন ,২০২১এর নির্বাচনের আগে এটি একটি পরীক্ষা হচ্ছে, কারণ ফলাফলের আগে ভালো করে পরীক্ষা দিলেই তবেই ভালো নাম্বার নিয়ে পাস করা যায়।

 আমরা সেই লক্ষ্যেই এমন কর্মশালার আয়োজন করেছি ।আগামীতে আমাদের লক্ষ্য বুথ স্তরে সংগঠন তৈরি করে তৃণমূলের সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করতে হবে।

 যেভাবে শাসকদলের দিকে জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষজন ঝুঁকছে তাতে আগামী দিনে তৃণমূলের সংগঠন যে বেশ ভালো জায়গায় পৌঁছাবে সে ব্যাপারে বলার অপেক্ষা রাখেনা।

এদিনের এই রাজনৈতিক কর্মশালায় উপচে পড়া ভিড় হয়েছিল গঙ্গারামপুরের রবীন্দ্রভবনে ।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670