লকডাউন সফল করতে ৩০০০ পরিবারের হাতে খাদ্য সামগ্রী ও মাক্স পৌঁছে দিলেন বিদ্যুৎ কর্মাধ্যক্ষের ইসলাম।

লকডাউন সফল করতে ৩০০০ পরিবারের হাতে খাদ্য সামগ্রী ও মাক্স পৌঁছে দিলেন বিদ্যুৎ কর্মাধ্যক্ষের ইসলাম।




লকডাউন সফল করতে কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের তিন হাজার পরিবারের হাতে খাদ্যসামগ্রী ও  মাক্স বিতরণ করলেন মোথাবাড়ি বিদ্যুৎ  কর্মাধ্যক্ষ সফিকুল আলম।
লক ডাউন এর ফলে যখন সাধারণ মানুষের দিশেহারা অবস্থা তখন তাদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এলো কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের বিদ্যুৎ কর্মাধ্যক্ষ তথা মোথাবাড়ি অঞ্চলের প্রাক্তন প্রধান।  


মালদা জেলার মধ্যে সবচেয়ে দুস্হ গরিবের সংখ্যা বেশি কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকে। এই ব্লকের বেশিরভাগ মানুষ গঙ্গার ভাঙ্গনে দিশেহারা ও অর্থনৈতিক ভাবে পঙ্গু। পাশাপাশি বহু সংখ্যক মানুষ ভিন রাজ্যে কাজ করে। 

এখানকার বেশিরভাগ মানুষ দিন আনি দিন খাই। এই লকডাউন এর ফলে এই সমস্ত মানুষ কেমন করে তাদের সংসার চালাবে তা বুঝে উঠতে পারছে না।


 এই পরিস্থিতিতে  পরিবারগুলিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল বিদ্যুৎ কর্মদক্ষ সাফিকুল আলম। ব্লকের তিনটি গ্রাম পঞ্চায়েত প্রায় ৩ হাজার পরিবারের হাতে ১০ কেজি চাল ৫ কেজি আলু তুলে দিয়েছেন তিনি । 

যে তিনটি অঞ্চলে এই ত্রাণ গুলি দেওয়া হয়েছে সেগুলি হল  পঞ্চনন্দপুর এক , পঞ্চনন্দপুর ২ এবং মোথাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত। 



বাড়ি বাড়িয়ে ত্রাণ পৌঁছে দিতে বিদ্যুতে কর্মদক্ষ কে বিশেষভাবে সাহায্য করেছেন স্থানীয় বিধায়ক সাবিনা ইয়াসমিন ও কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের কর্মাধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম। মোথাবাড়ি অঞ্চলের প্রাক্তন প্রধান তথা বর্তমান বিদ্যুৎ কর্মাধ্যক্ষের শফিকুল আলম জানান এই মুহূর্তে আমাদের এলাকায় গরিব মানুষের অবস্থা খুব খারাপ তারা কাজ করতে পারছে না ফলে তারা লকডাউন মন চায় না তাই আমি প্রচেষ্টা করে এই তিন হাজার পরিবার কে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে কিছুদিন বাড়িতে থাকার জন্য অনুরোধ করেছি যাতে আমরা করো না থাকে নিস্তার পায়।

এই মানুষগুলো যদি প্রতিদিন রাস্তায় বেরোই ভিড় করে তাহলে এলাকায় মৃত্যু মিছিল শুরু হয়ে যাবে। এলাকার রাজনীতিবিদ হিসেবে এটা আমার দায়িত্ব কর্তব্য বলে মনে করেছি।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670