মুখ্যমন্ত্রীর রিলিফ ফান্ডে সাহায্য করতে এগিয়ে এলেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য গৌতম পাল ,



 

নিজস্ব সংবাদদাতা, কল্যাণী: 

মহামারী করোনা মোকাবেলায় সাড়া দিল কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়। সহ-উপাচার্য গৌতম পালের উদ্যোগে একটি আবেদন বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল স্তরের মানুষের কাছে রাখা হয়। মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণায় এবং উচ্চ শিক্ষামন্ত্রীর আবেদনের প্রেক্ষিতে নিজের সাধ্যমতো বা একদিনের বেতন ত্রাণ তহবিলে জমা করার কথা বলা হয় আবেদনে।

 শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগতভাবে এটিই প্রথম উদ্যোগ। একদিনের বেতন মুখ্যমন্ত্রী তহবিলে তুলে দিতে আগ্ৰহ প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেকেই।

দিন কয়েক আগেই মহামারী মোকাবেলায় মুখ্যমন্ত্রী জনসাধারণের নিকট সাহায্য চেয়ে আবেদন করেন। তাতে যথেষ্ট সাড়াও মিলেছে। উচ্চ শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে



কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য একটি আবেদনে উপার্জনের একদিনের বেতন অথবা নিজের সাধ্যমতো অর্থ মুখ্যমন্ত্রী রিলিফ ফান্ডে দান করার জন্য সম্মতি দেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকমহল, শিক্ষাকর্মী বন্ধু, অফিসারদের পক্ষ থেকে যথেষ্ট সাড়া মিলেছে এবিষয়ে। সহ-উপাচার্য গৌতম পাল একটি বিশেষ আবেদনে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ দপ্তরে এ বিষয়ে নিজেদের মতামত জানাতে বলেন। তাতে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সমস্ত  স্তরের সদস্যরা এগিয়ে আসেন এবং মেইল মারফত নিজেদের সম্মতি জানান। 




কয়েক দিন আগে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন, করোনা মোকাবেলায় রাজ্যের চরমতম লড়াইয়ে সরকার আগেই ২০০ কোটি টাকার ইমারজেন্সি রিলিফ ফান্ড তৈরি করেছে। কিন্তু বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে জানান পরিস্থিতি মোকাবেলায় এই তহবিলও যথেষ্ট নয়।

 মুখ্যমন্ত্রী রিলিফ ফান্ডে জনগণের কাছে সাহায্যের আর্জি রাখেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি এক‌ই আর্জি রাখেন উচ্চশিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়‌ও। এই মানবিক দাবিতে সাড়া দিতে এগিয়ে আসেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম পাল। গত বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত একটি আবেদন আপলোড হয়। তাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত স্তরের সদস্যরা ইমেইল মারফত বেতন থেকে টাকা কেটে নেওয়ার সম্মতি জানান বলে সূত্রের খবর। এদিকে শিক্ষক সংগঠন ওয়েবকুপার মহামারী করোনা মোকাবেলায় সাধ্যমত মুখ্যমন্ত্রীর ত্রান তহবিলে আর্থিকভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। 

ইতিমধ্যে ওয়েবকুপার রাজ্য নেতৃত্ব ৫০ হাজার টাকার ফাণ্ড ত্রান তহবিলে জমা করেছেন। ওয়েবকুপার রাজ্য সভানেত্রী কৃষ্ণকলি বসু  শিক্ষকদের কাছে আবেদন রাখেন, সাধ্যমত সাহায্য করার। ওয়েবকুপার কল্যাণী ইউনিটের যুগ্ম-আহ্বায়ক অধ্যাপক নন্দকুমার ঘোষ এবং অধ্যাপক সুজয় কুমার মন্ডল জানান, সহ-উপাচার্য গৌতম পালের এই মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।

কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় এই মহতী উদ্যোগের অংশীদার হতে পেরে এবং মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সদস্যবৃন্দ তৃপ্তি অনুভব করবে ব‌ইকি! 
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রেও জানা গেছে, রাজ্য তথা দেশের চরমতম মহামারীতে নিজেরা সাহায্য করতে পেরে তারা অত্যন্ত খুশি। সহ-উপাচার্য গৌতম পালের এই অভিনব প্রয়াসকে‌ সাধুবাদ জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেকেই।

মার্চ মাসের শেষে সংগৃহীত মোট অর্থ মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে জমা দেওয়া হবে।

0/Post a Comment/Comments

Previous Post Next Post
Contact for advertising : 9831738670